নয়াদিল্লি, ১৮ জুন। স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়ার পথ অনুসরণ করে দেশের রাষ্ট্রায়ত্ব ব্যাঙ্কগুলিকে পরামর্শ দিল কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রক। ছোট ও মাঝারি ব্যাঙ্কগুলিকে অধিগ্রহণ করে বিশ্বমানের ব্যাঙ্ক হওয়ার চেষ্টা করতে বলা হয়েছে। কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রকের তরফে বলা হয়েছে, ব্যাঙ্ক অব ইন্ডিয়া, কানাড়া ব্যাঙ্ক, ব্যাঙ্ক অব বারোদা ও পঞ্জাব ব্যাঙ্ক অধিগ্রহণ প্রক্রিয়ার বিষয়টি দেখতে পারে। স্টেট ব্যাঙ্ক অনেকগুলি ব্যাঙ্ককে অধিগ্রহণ করে বিশ্বের সেরা পঞ্চাশটি ব্যাঙ্কের তালিকায় চলে এসেছে। তেমন সম্ভাবনা খতিয়ে দেখার জন্য চারটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক আনুষ্ঠানিকভাবে পরামর্শ দিয়েছে অর্থমন্ত্রক। (আরও পড়ুন- আশঙ্কা নয়, সত্যিই দেশকে বাঁচালেন মোদী, ডুবছে শ্রীলঙ্কা, বাংলাদেশ)

তবে অধিগ্রহণ প্রক্রিয়া অনেকগুলি বিষয় খতিয়ে দেখতে হবে। ‌ছোট ব্যাঙ্কগুলির ঋণের বোঝা, ভৌগলিক অবস্থান ও কর্মী সংখ্যা ইত্যাদি খতিয়ে দেখার পরই অধিগ্রহণ সম্ভব হবে। পাশাপাশি দুর্বল ব্যাঙ্কগুলি অধিগ্রহণ করলে আদতে কোনও লাভ হবে না। সেই ব্যাঙ্কের আর্থিক বোঝা চাপবে। ফলে ভেবেচিন্তেই নিতে হবে অধিগ্রহণের সিদ্ধান্ত।(আরও পড়ুন- কথা রাখলেন নরেন্দ্র মোদী, সুইস ব্যাঙ্ক থেকে দেশে ফিরছে কালো টাকা)

গত ১ এপ্রিলের ভারতীয় মহিলা ব্যাঙ্ক অধিগ্রহণ করেছে এসবিআই। এছাড়াও স্টেট ব্যাঙ্ক অব বিকানের অ্যান্ড জয়পুর, স্টেট ব্যাঙ্ক অব হায়দরাবাদ, স্টেট ব্যাঙ্ক অব পাটিয়ালা, স্টেট ব্যাঙ্ক অব মাইসোর এবং স্টেট ব্যাঙ্ক অব ত্রিবাঙ্কুর মিশে গিয়েছে এসবিআই-এর সঙ্গে। এর ফলে দেশজুড়ে স্টেট ব্যাঙ্কের ২৪ হাজার শাখা এবং ৫৯ হাজার এটিএম। তার আগে স্টেট ব্যাঙ্ক ইন্দোর মিশে গিয়েছিল স্টেট ব্যাঙ্ক অব ইন্দোরের সঙ্গে। কেন্দ্রীয় সরকার এমনই একটি প্রক্রিয়ার কথা ভাবছে। স্টেট ব্যাঙ্কের মতো অন্য ব্যাঙ্কগুলিও এই প্রক্রিয়া অবলম্বন করতে পারে।(আরও পড়ুন- লন্ডন সন্ত্রাসে নিহতদের স্মরণ করতে অস্বীকার করলেন সৌদি আরবের ফুটবলাররা, দেখুন ভিডিও)