গুয়াহাটি, ৯ জানুয়ারি : অসমে অবৈধভাবে বসবাসকারী ১৭ বাংলাদেশি নাগরিককে সেদেশে ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু করল রাজ্য সরকার।

গত বছরও একইভাবে ১০ বাংলাদেশি নাগরিককে ফেরত পাঠিয়েছে ভারত। ভারতে বসবাসকারী অমুসলিম বাংলাদেশিকে এদেশে নাগরিকত্ব দেওয়ার ব্যাপারে চিন্তাভাবনা করছে ভারত। কিন্তু ওই ১৭ জনের মধ্যে তিন জন অমুসলিম। সম্ভবত বাংলাদেশে নি‌র্যাতন থেকে বাঁচতেই তাঁরা এদেশে ঢুকে পড়েছিলেন।(আরও পড়ুন : অবৈধ বাংলাদেশিদের ফেরত ফের পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু রাজ্যে)

সোমবার অর্থাৎ আজ ওই ১৭ জনকে বাংলাদেশের হাতে তুলে দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তা শেষপ‌র্যন্ত স্থগিত হয়ে গেছে। কারণ বাংলাদেশ এনিয়ে আইন প্রক্রিয়া শেষ করে উঠতে পারেনি। সম্ভবত আগামিকাল তাদের ফেরত পাঠানো হবে।

অসমের করিমগঞ্জ জেলার পুলিশ সুপার প্রদীপরঞ্জন কর সংবাদ মাধ্যমে জানিয়েছেন, গত কয়েক বছরে ওইসব লোকজন ভারতে ঢুকে পড়েছিলেন। আগামিকাল তাদের ফেরত পাঠানো হবে। গত বছর ভারতে অবৈধভাবে ঢুকে পড়ার জন্য মোট ৫৪ জনকে ধরা হয়। এদের মধ্যে ওই ১৭ জন ছাড়া বাকীরা মায়ানমারের নাগরিক। এদের এতদিন শিলচরে আটকে রাখা হয়েছিল।(আরও পড়ুন : ছবি দেখে পরিবারকে চিনতে পারলো গীতা)

দুদফায় বাংলাদেশের সঙ্গে কথা বলে ওই ফেরত পাঠানোর বিষয়টি স্থির হয়েছে। অসমে বিএসএফের ডিআইজি জানিয়েছেন, ওই ১৭ জনকে করিমগঞ্জের স্টিমারঘাট দিয়ে বাংলাদেশে ফেরত পাঠানো হবে। বাংলাদেশ বর্ডর গার্ডের অধিকারিকরা তাদের গ্রহণ করবেন।