নাগপুর, ১৭ জুলাই। দিন কয়েক আগেই নাগপুরে গোমাংস নিয়ে ‌যাওয়ায় বিজেপির সংখ্যালঘু নেতাকে মারধর করার অভি‌যোগ উঠেছিল নির্দল বিধায়কের দলবলের বিরুদ্ধে। ফরেনসিক রিপোর্টে দেখা গিয়েছে, গোমাংসই নিয়ে ‌যাচ্ছিলেন সেলিম শাহ। তাঁকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শাহকে মারধরের অভি‌যোগে গ্রেফতার করা হয়েছে চার জনকে। (আরও পড়ুন- বাংলাদেশের ডেপুটি হাইকমিশনের সামনে VHP-র বিক্ষোভ, সুষমাকে চিঠি ক্ষুব্ধ মমতার)

মহারাষ্ট্রে গোমাংস নিষিদ্ধ। সেজন্যই সেলিম শাহকে Maharashtra Animal Preservation (Amendment) Act অনু‌যায়ী গ্রেফতার করা হয়েছে। গত ১২ জুলাই শাহকে গোমাংস নিয়ে ‌যাওয়ার সন্দেহে মারধর করে নির্দল বিধায়কের গোরক্ষা বাহিনী। শাহ তখন দাবি করেছিলেন, তিনি পাঁঠার মাংস নিয়ে ‌যাচ্ছিলেন। তবে ফরেনসিক পরীক্ষায় দেখা গিয়েছে, সালিমের ব্যাগে গোমাংসই ছিল। (আরও পড়ুন- বসিরহাটকাণ্ডের তদন্তে এনআইএ-র নজরে রাজ্যের অনুমোদনহীন মাদ্রাসাগুলি)

নাগপুরের পুলিশ সুপার শৈলেশ বালকাড়ে জানিয়েছেন, শনিবারই সেলিম শাহকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। তাঁকে ১ দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে আদালত। নাগপুরের বিজেপি সভাপতি রাজীব পোতদার জানিয়েছেন, সেলিমকে দল থেকে বহিষ্কৃত করা হবে। (আরও পড়ুন- লঙ্কাগুঁড়ো, পেট্রোল গরুর ‌যৌনাঙ্গে ঢুকিয়ে নৃশংসভাবে পাচার হয় বাংলাদেশে)