পটনা, ৩০ নভেম্বর। বুধবার পটনায় মমতার নোট বাতিল বিরোধী ধরনামঞ্চ ভরানোর দায়িত্ব নিয়েছিলেন তিনি। সেই লালুপ্রসাদ ‌যাদবই নোটবাতিল নিয়ে ডিগবাজি খেলেন রাতারাতি। নিজের দলের বিধায়কদের জানিয়ে দিলেন, নোট বাতিল নিয়ে নীতীশের মতো মোদীর পাশে রয়েছেন তিনিও। লালুর এই ঘোষণা নিয়ে আপাতত রা কাটছে না তৃণমূল।

 

পড়ুন – শিশুপাচার কাণ্ডে গ্রেফতার বিজেপি নেতা দিলীপ ঘোষ

 

পটনায় মঙ্গলবার মমতার ধরনামঞ্চে জনসমাগম ছিল চোখে পড়ার মতো। তৃণমূলের ধরনামঞ্চে হাজির ছিলেন লালুর দল রাষ্ট্রীয় জনতাদলের নেতারা। ‌যদিও নোট বাতিল নিয়ে RJD-র অবস্থান ততক্ষণে ঠিক হয়ে গিয়েছে। মঙ্গলবার রাতেই নীতীশের উপস্থিতিতে দলীয় বিধায়কদের বৈঠকে লালু জানিয়ে দিয়েছিলেন, কালোটাকার কারবার বন্ধে নোট বাতিলের সমর্থক তিনি। ‌তবে ‌যে পদ্ধতিতে নোট বাতিল করা হয়েছে ও তাতে সাধারণ মানুষের ‌যে ভোগান্তি হচ্ছে তার বিরোধিতা করবে RJD.

‌যদিও তার আগে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় লখনউ থেকে পটনা পৌঁছেই লালুর বাড়ি ‌যান মমতা। জানান, লালুপ্রসাদের শরীর খারাপ বলে খবর পেয়েছিলেন। তাই দেখতে এসেছেন তাঁকে। লালু – রাবড়ির সঙ্গে ‘সৌজন্য’‍ সাক্ষাৎ সারেন তিনি। রাজনৈতিক মহলের মতে, নোট বাতিল নিয়ে প্রথম দিন থেকেই মোদীর পাশে দাঁড়িয়েছেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার। ‌যে মোদীকে প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী করায় NDA ছেড়েছিল তাঁর দল JDU, অপ্রত্যাশিতভাবে সেই মোদীকে এই ইস্যুতে লাগাতার সমর্থন করে গিয়েছেন নীতীশ। ফলে মমতা বিলক্ষণ জানতেন নীতীশের সঙ্গে দেখা করে চিঁড়ে ভিজবে না।

 

পড়ুন – মাস পয়লায় নগদের চাহিদা মেটাতে এরাজ্যে এল বান্ডিল বান্ডিল নোট

 

উলটো দিকে মঙ্গলবার প‌র্যন্ত নোট বাতিলের ক্রমাগত মোদীর সমালোচনা করে গিয়েছেন লালু। এই নিয়ে বিহারে ‘মহাগটবন্ধন’‍-এ চিঁড় ধরার আশঙ্কাও করছিলেন অনেকে। সেই জল্পনায় জল ঢালতে শেষ প‌র্যন্ত নিজের বাড়িতেই দলীয় বিধায়কদের বৈঠক ডাকেন লালু। আমন্ত্রণ জানান মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারকে।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় মমতা লালুর বাড়ি ছাড়ার কিছুক্ষণ পর শুরু হয় সেই বৈঠক। বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ ছাড়াও হাজির ছিলেন RJD-র সমস্ত বিধায়ক। সেখানেই নীতীশের পাশে দাঁড়ে নোট বাতিল নিয়ে নিজের অবস্থান বদল করেন লালু।

বলে রাখি, বিহারে বর্তমানে ক্ষমতায় রয়েছে RJD ও JDU-র জোট। মোদীকে রুখতে বিধানসভার নির্বাচনের আগে জোট করেন দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী। মুখ্যমন্ত্রী JDU-র নীতীশ কুমার হলেও বিধায়ক সংখ্যার নিরিখে এগিয়ে লালুর দল RJD.