শ্রীনগর, ৩০ নভেম্বর : নাগরোটার সেনা ছাউনিতে জঙ্গি হামলার ঘটনায় ৭ জওয়ানের মৃত্যু হয়েছে l ৩ জঙ্গিকেও মারা হয়েছে গুলি করে l কিন্তু, মঙ্গলবার ভোরে যেমন আচমকাই নাগরোটার ওই সেনা ছাউনিতে ঢুকে জঙ্গিরা হামলা চালায়, তা বেশ কিছুটা আকস্মিক l কিন্ত, জানেন কি, নাগরোটার সেনা ছাউনিতে অফিসার্স কোয়ার্টারে ঢুকে জঙ্গিদের আরও কোনও নাশকতা ঘটানোর পরিকল্পনা ছিল ! আর জঙ্গিদের সেই পরিকল্পনা রুখে দেন দুই অসম সাহসী মহিলা l

সূত্রের খবর, মঙ্গলবার ভরে নাগরোটার সেন ছাউনি লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়তে ছুঁড়তে সেখানে প্রবেশ করে জঙ্গিদের একটি দল l দুই সেনা অফিসারের স্ত্রী সেই আঁচ পাওয়ার পর পরই, জঙ্গিদের রুখতে ময়দানে নেমে পড়েন l স্বামীদের নাইট ডিউটি থাকায়, তাঁদেরই যে কোনওভাবে গড় রক্ষা করতে হবে এবং জঙ্গিদের অফিসার্স কোয়ার্টারে ঢুকতে দেওয়া যাবে না, সেই পরিকল্পনা করেন l (আরও দেখুন : নাগরোটায় সেনা-জঙ্গি গুলির লড়াই, ২ জঙ্গিকে খতম করলেন জওয়ানরা)

জানা যাচ্ছে, জঙ্গিরা যেতে অফিসার্স কোয়ার্টারে না ঢুকতে পারে, তার জন্য ঘরের যাবতীয় জিনিসপত্র কাজে লাগিয়ে, সেখানকার সমস্ত রাস্তা বন্ধ করে দেন ওই দুই মহিলা l ফলে, জঙ্গিরা অনেক চেষ্টা করেও, শেষ পর্যন্ত সেনাদের কোয়ার্টারে প্রবেশ করতে পারেনি l (আরও দেখুন : পাকিস্তানের চোখ উপড়ে নিও আহক, ক্ষোভে ফুঁসছে সেনা)

এক সেনা আধিকারিকের কথায়, ওই দুই মহিলা মঙ্গলবার অসম সাহসিকতার পরিচয় দিয়েছেন l অফিসার্স কোয়ার্টারে জঙ্গিদের ঢোকা বেরোনোর সমস্ত রাস্তা বন্ধ করে দিয়ে, তাঁরা পাক জঙ্গিদের বড় নাশকতার পরিকল্পনা ভেস্তে দিয়েছেন l না হলে, আরও বড় কোনও ঘটনা ঘটতে পারত l

ভারতীয় সেনা বাহিনীতে মহিলাদের নিযুক্ত করার কাজ শুরু হয়েছে l ভারত-পাক সীমান্তেও তাঁদের পাহারা দিতে হচ্ছে পুরুষদের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে l তবে, সীমান্ত পাহারা না দিয়েও, মহিলারা যে অসম সাহসী হয়ে উঠছেন, নাগরোটায় জঙ্গি হামলার ঘটনা তার অন্যতম নিদর্শন l