শ্রীনগর, ৩০ নভেম্বর : নাগরোটায় জঙ্গিদের সঙ্গে গুলির লড়াইয়ে শহীদ হয়েছেন ৭ জওয়ান l একদিকে যখন নাগরোটায় সেনা ছাউনিতে রক্ষার জন্য মরণপণ লড়াই চলছে, তখন সাম্বার সেনা ছাউনিতে প্রবেশের চেষ্টা করছে আরও একদল জঙ্গি l

সাম্বার সেনা ছাউনিতে যাতে কোনওভাবেই জঙ্গিরা প্রবেশ করতে না পারে, তার জন্য চুড়ান্ত সতর্কতা জারি করে বিএসএফ l সাম্বার সেনা ছাউনি লক্ষ্য করে পাকিস্তানি জঙ্গিরা গুলি চালানো শুরু করলে, সেনা বাহিনীও তার পালটা জবাব দেয় l (আরও দেখুন : নাগরোটায় বড় নাশকতা রুখে দিলেন ২ অসম সাহসী মহিলা) 

জম্মু কাশ্মীরে বিএসএফের এডিজি অরুণ কুমার বলেন, গ্রেনেড ছুঁড়তে ছুঁড়তে জঙ্গিরা সেনা ছাউনিতে প্রবেশের করলে, তা রুখে দিয়েছেন জওয়ানরা l শুধু তাই নয়, সীমান্ত থেকেই যাতে জঙ্গিদের ফের পাকিস্তানে ফিরিয়ে দেওয়া যায়, তার ব্যবস্থাই বিএসএফ করেছে বলেও আশ্বাস দেন অরুণ কুমার l

 


আর তারপরই নাগরোটায় ৩ জঙ্গিকে গুলি করে শেষ করে দেয় সেনা l অরুণ কুমার জানান, নাগরোটায় আরও বড়সড় নাশকতার ছক করেই হামলা চালায় জঙ্গিরা l নিহত জঙ্গিদের কাছ থেকে ৩টি এ কে ৪৭, ১৬ রাউন্ড গুলি, ৩১টি গ্রেনেড এবং ২০টি ম্যাগাজিন উদ্ধার করা হয়েছে l

জম্মু কাশ্মীরের সেনা ছাউনিতে প্রবেশ করে, সেখানকার অফিসার ও তাঁদের পরিবারকে পণবন্দি করে যাতে ভারতের ঘুম উড়িয়ে দেওয়া যায়, সেই পরিকল্পনাই ছিল জঙ্গিদের l কিন্তু, তা রুখে দেওয়া হয়েছে l তবে, নিহত জঙ্গিদের কাছ থেকে যে ২০টি ম্যাগাজিন উদ্ধার করা হয়েছে, সেটি কী ভাষায় লেখা এবং, সেখানে সেনা ছাউনির কোনও ম্যাপ ছিল কি না, সে বিষয়ে স্পষ্ট কোনও তথ্য মেলেনি l