নয়া দিল্লি, ২৯ নভেম্বর। বাবার তৈরি বাড়িতে ছেলের কোনও জন্মগত অধিকার নেই। ছেলে বিবাহিত হোন বা অবিবাহিত, বাবা তাঁকে নিজের তৈরি বাড়িতে থাকতে দেবেন কি না তা একান্তই তাঁর ব্যক্তিগত ব্যাপার। আর ঘাড়ধাক্কা দিলে ছেলেকে ছেলেকে দেখতে হবে পথ। মঙ্গলবার এক মামলার রায়ে এমনটাই জানাল দিল্লি হাইকোর্ট।

কোর্ট আরও বলেছে, ‘ছেলেকে বাবা-মা দীর্ঘদিন তাঁদের বাড়িতে থাকতে দিয়েছেন মানে এই নয় ‌যে সারা জীবন বাবা-মা-কে সেই বোঝা বইতে হবে। ছেলেকে বাবা-মায়ের তৈরি বাড়িতে থাকতে হবে তাঁদের দয়াতে, আশ্রিতের মতো।’‍

দিল্লি হাইকোর্টের বিচারপতি প্রতিভা রানি তাঁর রায়ে বলেছেন, ‘বাবা-মায়ের তৈরি বাড়িতে ছেলের বাস করার কোনও অধিকার নেই। ছেলে সেই বাড়িতে থাকতে পারে বাবা-মায়ের দয়ায়। ‌যেদিন বাবা-মা ছেলেকে বাড়ি থেকে বেরিয়ে ‌যেতে বলবেন, সেই দিনই বেরিয়ে ‌যেতে হবে ছেলেকে। তা সে ছেলে বিবাহিত হোক বা অবিবাহিত।’‍

নিম্ন আদালতের এক রায়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে দিল্লি হাইকোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিলেন এক ব্যক্তি ও তাঁর স্ত্রী। ছেলের দখলে থাকা বাড়ির একটি তলা খালি করিয়ে দেওয়ার দাবি তুলে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন বৃদ্ধ দম্পতি। বৃদ্ধ-বৃদ্ধার পক্ষেই রায় দিয়েছিল নিম্ন আদালত।

আদালতে প্রবীণ দম্পতি জানিয়েছিলেন, ছেলে-বউমা মিলে তাঁদের জীবন নরক বানিয়ে ছেড়েছে। এর পরই তাদের বাড়িছাড়া করতে ২০০৭ সালে পুলিশের দ্বারস্থ হয়েছিলেন তাঁরা।