কলকাতা, ২১ এপ্রিল : পয়েন্ট তালিকায় শীর্ষে থাকা মুম্বইকে টেনে নামাতে আজ গুজরাতকে ছোট করে দেখার উপায় নেই নাইটদের। তালিকার নীচে থাকা লায়ন্সকে হারিয়ে তালিকায় ১০ পয়েন্ট করাই এখন লক্ষ্য গম্ভীরদের‍।

গুজরাতের বিরুদ্ধে খেলেই আইপিএলে অভি‌যান শুরু করেছিল কেকেআর। এই ম্যাচে হেরে গেলেই আইপিএলে গুজরাতের অবস্থা আরও তলানিতে ঠেকে ‌যাবে। কিন্তু কেকেআর হারলে তারাও ভীষণ চাপে পড়ে ‌যাবে। কারণ আজ ইডেনের ম্যাচ খেলা হয়ে গেলে কেকেআরের ম্যাচ খেলা হয়ে ‌যাবে ৬টি। পয়েন্ট দাঁড়িয়ে থাকবে সেই আটেই। অন্যদিকে মুম্বইয়ের পয়েন্ট থাকবে দেশই। ফলে গৌতম গম্ভীরের কাছে এই ম্যাচ ‌যথেষ্টই গুরুত্বপূর্ণ।(অারও পড়ুন : মুম্বইয়ের ব্যাটিং তাণ্ডবে দাঁড়াতেই পারল না পঞ্জাবের বোলাররা )

ব্যাটে বলে সুনীল নারিন বারবার ক্লিক না করলেও নাইট শিবিরে অন্য অনেকেই রয়েছেন ‌যারা দাঁড়িয়ে ‌যাচ্ছেন। গৌতম গম্ভীর প্রথম দুটি ম্যাচে ভালো খেললেও আর সেভাবে দাঁড়োতে পারেননি। কিন্তু আইপিএলে অন্যান্য দলের কাছে মাথাব্যাথার কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে ইউসুফ পাঠান, রবিন উথাপ্পা, মণীশ পান্ডেরা। অন্যদিকে বেলিংয়ে নারিন, পীয়ুষ চাওলারাতো রয়েইছে।

অন্যদিকে, গুজরাত লায়ন্সের বোলিং ‌সেভাবে ক্লিক করছে না। দলের ৪ বিদেশি প্লেয়ার রয়েছে। কিন্তু এদের কেউই কোনও কাজে আসছেন না। মুনাফ প্যটেলকে দিয়ে বোলিং শক্তিতে একটা গতি আনার চেষ্টা করেছিল গুজরাত। কিন্তু তাও কাজ করেনি। তবে একমাত্র ভরসা রবীন্দ্র জাদেজা। দলের স্পিনারদের বোলিংয়ে রানরেটের গড় ১০.৩২। ফলে বোলিং নিয়ে আজও ভাবনায় থাকবে গুজরাত।(আরও পড়ুন : টিকে থাকার লড়াই পঞ্জাবের, শীর্ষে উঠতে মরিয়া মুম্বই)

সুনীল নারিনকে দিয়ে ওপেন করার পর ওপেনিংয়ে বদল এনেছেন গম্ভীর। কোনও কোনও মহল থেকে শোনা ‌যাচ্ছে আজ রবীন উথাপ্পা ওপেন করতে পারেন। পাশাপাশি আজ সাকিব আল হাসানকে খেলাতে পারে কেকেআর।