বেঙ্গালুরু, মে : মরা বাঁচার লড়াইয়ে ব্যাট করতে নেমে ভয়ঙ্কর ব্যাটিং ধসের কবলে কলকাতা নাইট রাইডার্স। দশ ওভারের মধ্যেই ৫ উইকেট হরিয়ে বিপ‌র্যস্ত কেকেআর। আর কুড়ি ওভারের আগেই ১০৭ রানেই শেষ নাইটরা।

মুম্বইয়ের বোলিংয়ের সামনে শুরুতেই একপ্রকার দিশেহারা কলকাতা। ওপেন করতে নেমে মালিঙ্গাদের বোলিংয়ে প্রবল চাপে পড়ে ‌যান নাইট ব্যাটসম্যানরা। ১.৩ ওভারের মাথায় ক্রিস লিন পড়ে ‌যান মাত্র ৪ রানের মাথায়। বুমরাহর বলে পোলার্ডের হাতে ধরা পড়েন নাইট ব্যাটসন্যান। দল তখন মাত্র ৫ রানে দাঁড়িয়ে।(আরও পড়ুন : ওয়ার্নারের উইকেট, গম্ভীরের ওপেনিংয়ে ফেরা ম্যাচ জেতার চাবিকাঠি)

ক্রিস লিন পড়ে ‌যাওয়ার পর ক্রিজে আসেন সুনীল নারিন। তাঁর পেছনে মালিঙ্গাকে লাগিয়ে দেন রোহিত শর্মা। নারিন তাঁর স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিতে শুরু করলেও মাত্র ১০ রানের মাথায় স্টাম্প হয়ে ‌যান। মাত্র ২.৫ ওভারের মাথায় পড়ে ‌যান রবীন উথাপ্পা। ফের বুমরাহর বলে এলবি হয়ে ‌যান উছাপ্পা। তাঁর খাতায় তখন মাত্র ১ রান।

মাত্র ২৩ রানের মধ্যে ৩ উইকেট হারিয় প্রবল চাপে পড়ে ‌যায় নাইটরা। উইকেটের উল্টো দিকে দাঁড়িয়ে দলের ধস দেখতে বাধ্য হয় গম্ভীর। একসময় ৬.৫ ওভারের মাথায় ধৈ‌র্য হারিয়ে আউট হয়ে ‌যান গম্ভীর। ১২ রানের মাথায় পড়ে ‌যান নাইট ক্যাপ্টেন। দলের রান তখন মাত্র ৩১। পরের বলেই পড়ে ‌যান গ্রান্ডহোম। শূন্য রানে তিনি ফিরে ‌যান।(আরও পড়ুন : মাহি মার রাহা হ্যায়)

হাতে মাত্র ৫ উইকেট। মাথায় ওপরে চড়ে বসেছে মুম্বইয়ের বোলাররা। এরকম এক অবস্থায় দলকে টানতে থাকেন ইশান জাগ্গি ও সূ‌র্যকুমার ‌যাদব। একসময়ে ২৮ রানে ক্যাচ তুলে আউট হয়ে ‌যান ক্রিজে সেট হয়ে ‌যাওয়া জাগ্গি। একত্রিশ বলে তিনি ২৮ রান করে ‌যান। করণ শর্মার বলে তিনি আউট হন। একশো পেরোনোর আগেই ৬ উইকেট পড়ে ‌যায় নাইটদের। দলের রান তখন ৮৭।

জাগ্গি পড়ে ‌যাওয়ার পর মনে করা হয়েছিল শেষের দিকের নাইট ব্যাচসম্যানরা চালিয়ে খেলবেন। কিন্তু মুম্বইয়ের বোলিংয়ের সামনে তারা ব্যাট খুলতেই পারলেন না। জনসনের বলে মাত্র ২ রানে আউট হয়ে ‌যান পীষুষ চাওলা। এরপর পড়ে ‌যান কুল্টন নাইল(৬)।

আট উইকেটে ১০০ হয়ে ‌যায় নাইটদের। শেষ মুহূর্তে হয়তো দু-চারটি বড় শর্ট নেবেন এমন আশায় গ্যালারিতে বসে তখন হাত নাড়তে থাকনে শাহারুখ। অবশেষে ৩১ রানের মাথায় সূ‌র্যকুমারের ক্যাচ ধরে ফেলেন মালিঙ্গা। নাইটদের কফিনে একপ্রকার শেষ পেরেকই বলা ‌যায়। দলের রান গিয়ে দাঁড়ায় ৯ উইকেটে ১০১। শেষপ‌র্যন্ত ১০৭ রানেই দশ উইকেট পড়ে ‌যায় নাইটদের। ১৮.৫ ওভারেই খেলা শেষ হয়ে ‌যায়।

মুম্বইয়ের পক্ষে ভালো বল করেন, ‌যশপ্রীত বুমরাহ(৩), মালিঙ্গা, মিচেল জনসন ও করণ শর্মা।