শ্রীনগর, ১৯ জুন। চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে ভারত হারার পরই সেলিব্রেশন শুরু করে দিয়েছে ভারতের পাক গ্যাং। গতকাল পাকিস্তান ম্যাচ জেতার পরই শ্রীনগরের রাস্তায় নেমে বাজি ফাটানো হয়েছে। পাকিস্তানের পতকা নিয়ে চলেছে উল্লাস। ড্রাম বাজিয়ে চলেছে নাচ। এই সব কাশ্মীরি ‌যুবকদের তোল্লাই দিয়েছেন বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতারা। উপত্যকার নানা প্রান্তে চলেছে উৎসব। মীরওয়াইজ নিজের বাড়ি থেকে বেরিয়ে ওই  ‌যুবকদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

ভারতে থেকে  ‌যাবতীয় সুবিধা নিয়ে শত্রু দেশকে সমর্থন কেন? বিচ্ছিন্নতাবাদীরা দেখিয়ে দিলেন তাঁরা কত বড় বিশ্বাসঘাতক। অথচ বন্যার সময় বিচ্ছিন্নতাবাদী নেতাদের সেনাবাহিনীর কথা মনে পড়ে। ত্রাণের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের কথা মনে পড়ে। পাশের পাক অধিকৃত কাশ্মীরে উন্নয়নের ছিটেফোঁটা নেই। সেখানে মানুষ দুবেলা খেতে পান না। অথচ ভারতের কাশ্মীরে যাবতীয় সু‌যোগসুবিধা রয়েছে।

প্রশ্ন উঠছে, এরা পাকিস্তানের হয়ে গলা ফাটান। কিন্তু পাকিস্তানকে ভালবাসলে কেন পাকিস্তানে চলে‌ যাচ্ছেন না? এদেশেই থেকে এদেশ থেকে ‌যাবতীয় নাগরিক স্বাচ্ছন্দ্য নিয়ে পাকিস্তানকে সমর্থন কেন? দেশের সঙ্গে বিশ্বাসঘাতকতা কেন?