কলকাতা, ২১ মার্চ। নারদ-তদন্তে সিবিআই আটকাতে সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছে রাজ্য সরকার। রাজ্যের আবেদনে বলা হয়েছে, ফুটেজে মন্ত্রীরা টাকা নিচ্ছেন তা পরিস্কার নয়। সিবিআই নারদকাণ্ডের তদন্ত করলে কেন্দ্র-রাজ্য সম্পর্কে প্রভাব পড়তে পারে। দুর্নীতি বিরোধী আইনে মামলা হওয়া উচিত নয় বলেও দাবি রাজ্য সরকারের। (আরও পড়ুন- নারদকাণ্ডে ‘সিবিআই ভয়ে’ হাসপাতালে তৃণমূলের বিধায়ক ইকবাল আহমেদ)

এদিকে হাইকোর্টের নির্দেশমতো এদিনই নারদকাণ্ডে প্রাথমিক তদন্ত রিপোর্ট আদালতে পেশ করেছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। আগামিকালই এফআইআর দায়ের করতে পারে তারা। নারদকাণ্ডে অভি‌যুক্ত তৃণমূল নেতাদের বিরুদ্ধে দুর্নীতি বিরোধী আইনের ধারায় এফআইআর করা হতে পারে। এব্যাপারে লিগাল সেলের পরামর্শ নিয়েছে সিবিআই। দুর্নীতি বিরোধী আইনে মামলা আটকাতেই সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছে রাজ্য। (আরও পড়ুন- নারদ, নারদ! মোদীকে তুষ্ট করতেই কি ‌যোগি আদিত্যনাথের পাশে মমতা?)

এফআইআর করার পর সিবিআই তালিকা ধরে ডাকতে পারে অভি‌যুক্ত তৃণমূল নেতাদের। তাঁদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। ডাকা হতে পারে নারদকর্তা ম্যাথু স্যামুয়েলকে। তাঁকে সিবিআই জেরার মুখে পড‌যতে হবে। এদিকে, নারদকর্তাকে ইমেলে নোটিস পাঠিয়েছিল কলকাতা পুলিষ। সেই ইমেলের জবাব দিয়েছেন ম্যাথুর গাড়ির চালক। কলকাতা পুলিশ ‌যে সব নথিপত্র চেয়েছিল, তা তাঁর পক্ষে দেওয়া সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন ম্যাথু স্যামুয়েল। পরবর্তী পদক্ষেপ স্থির করতে আইনি পরামর্শ নিচ্ছে পুলিশ।