কলকাতা, ১৬ জুলাই:  অমানবিক বললেও কম বলা হয়।

বয়স মাত্র আট। বাঁ চেখে বিঁধে রয়েছে পেরেক। এরকম অবস্থায় জেলা থেকে কলকাতা মোট পাঁচটি হাসপাতাল তাকে ফিরিয়ে দিল। অবশেষে তার অস্ত্রোপচার হল কলকাতার এনআরএস হাসপাতালে। তাও আবার স্বাস্থ্য দফতরের ফোন পেয়ে।

(আরও পড়ুন: মমতাকে হুঁশিয়ারি দেওয়ায় দিলীপের বিরুদ্ধে তদন্তে নামল পুলিশ, রূপার নামে এফআইআর)

খেলতে খেলতে বাঁদিকের চোখে একটি পেরেক ঢুকে ‌যায় ক্যানিংয়ের জীবনতলার বাসিন্দা করিম মোল্লার। বিভৎস সেই দৃশ্য দেখে সাধারণ লোকের অসুস্থ হয়ে ‌যাওয়ার কথা। সেই শিশুকে নিয়েই এক হাসপাতাল থেকে অন্য হাসপাতালে নিয়ে দৌড়াতে শুরু করেন শিশুটির বাবা। পেরেকটি বাঁ চোখের মধ্যে দিয়ে ঢুকে তার নাকের ভেতরের অংশে ঢুকে ‌যায়।

পরিবারের অভি‌যোগ, করিমকে প্রথমে নিয়ে ‌যাওয়া হয় ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে। সেখান থেকে পাঠিয়ে দেওয়া হয় কলকাতার ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। সেখানে তাকে ভর্তি নেওয়া হয়নি। এবার করিমকে আনা হয় এসএসকেএম হাসপাতালে। সেখান থেকে তাকে পাঠানো হয় বাঙ্গুর ইনস্টিটিউট অব নিউরোলজিতে, সেখান থেকে পাঠানো হয় RIO-তে। অবশেষে তাকে আনা হয় এনআরএস হাসপাতালে। সেখানে প্রথমে ভর্তি নিতে অস্বীকার করা হলেও পরে সেখানেই ভর্তি নেওয়া হয় করিমকে। অস্চ্রোপচার করাও হয়।

(আরও পড়ুন :  রাজৌরিতে পাক সেনার বেপরোয়া গোলাগুলি, শহিদ সেনা জওয়ান)

শনিবার অস্ত্রপচারের পর কয়েকবার বমি করে করিম। রবিবার হাসপাতাল সূত্রে অনেকটাই ভালে রয়েছে সে। তবে ওই পেরেক ঢুকে ‌যাওয়ার ফলে তার দৃষ্টিশক্তির কোনও ক্ষাতি হবে কিনা না নিয়ে এখনও কিছু স্পষ্ট ভাবে বলতে পারছেন না চিকিৎসকরা।