নয়াদিল্লি, ১ ডিসেম্বর : ক্ষমতায় এলে ভারত চাইলে তবেই তিনি ভারত-পাকিস্তানের মধ্যেকার সমস্যা নিয়ে নাক গলাবেন বলে মন্তব্য করেছিলেন ডোনা্ড ট্রাম্প। কিন্তু এখন বলছেন একেবারে উল্টো কথা।

সম্প্রতি ট্রাম্প নওয়াজ শরিফের ঢালাও তারিফ করেছেন। বলেছেন, নওয়াজ শরিফ একজন অসাধারণ মানুষ। তিনি নওয়াজ শরিফকে জানিয়েছেন, প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ওর ভাবমূর্তি অত্যন্ত ভালো। উনি চাইলে ওঁর ‌যে কোনও সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করব। পাকিস্তান সরকারের একটি প্রেস বিবৃতিতে একথা জানানো হয়েছে। সম্প্রতি শরিফ ট্রাম্পকে ফোন করেছিলেন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জয়ের জন্য তাঁকে অভিনন্দন জানাতে। তখনই নাকি ট্রাম্প ওই কথা বলেন।(আরও পড়ুন : মার্কিন মুলুকে জয়ী ডোনাল্ড ট্রাম্প, উচ্ছ্বাস হিন্দু সংগঠনগুলির)

মার্কিন ‌যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারে দেশের মুসলিমদের প্রবলভাবে সোচ্চার হন ট্রাম্প। বলেছিলেন তিনি ভোটে জিতলে আমেরিকায় মুসলিমদের ঢোকা বন্ধ করে দেবেন। নির্বাচনের প্রচার চলাকালীনই আমেরিকা একাধিকবার পাকিস্তানকে জঙ্গি তৎপরতা নিয়ে সাবধান করে। এমনকি এও মার্কিন ‌যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে বলা হয়, পাকিস্তানকে সেদেশে জঙ্গি ঘাঁটিগুলিকে ধ্বংস করতে হবে। তা না হলে তারাই পাকিস্তানে ঢুকে জঙ্গিদের শায়েস্তা করে দেবে। ফলে মনে করা হয়েছিল দুনিয়ার মুসলিম অধ্যুসিত দেশগুলো তো বটেই পাকিস্তানের সঙ্গেও আমেরিকার সম্পর্ক অন্যদিকে মোড় নেবে। কিন্তু এবার উল্টো সুর ট্রাম্পের গলায়।(আরও দেখুন : ডোনাল্ড ট্রাম্প নাকি পাকিস্তানি?  দাবি নওয়াজের দেশে সংবাদমাধ্যমের)

পাকিস্তানের ওই বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ট্রাম্প বলেছেন, শরিফকে আমি বহুদিন ধরেই চিনি। পাকিস্তানে ‌যাওয়া আমন্ত্রণ পেয়ে তিনিই খুবই খুশি। পাকিস্তানের মানুষজন দুনিয়ের অন্যান্য দেশের মানুষের থেকে অনেকটাই আলাদা। ট্রাম্পের ওই মন্তব্য স্বভাবতই ভারতকে ভাবাচ্ছে।