ক্যালিফোর্নিয়া, ২৯ নভেম্বর : মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ট্রাম্পের জেতার পর থেকেই আতঙ্কে সে দেশের মুসলিমদের একাংশ। প্রথমে এক শিক্ষিকাকে হিজাব গলায় পরে ঝুলে পড়তে বলা, এক মুসলিম ছাত্রীর হিজাব ছিঁড়ে মাটিতে ফেলে মারার পর এবার মসজিদে এল হুমকি চিঠি।

letter-.jpg---222

ক্যালিফোর্নিয়ার ৩টি ও জর্জিয়ার ১টি মসজিদে এল হাতে লেখা একটি হুমকি চিঠি। সেই চিঠিতে মুসলিমদের সম্মোধন করা হয়েছে শয়তানের বাচ্চা বলে। চিঠিতে মুসলিমদের উদ্দেশ্যে লেখা হয়েছে, তোমরা ঘৃন্য জীব, তোমাদের বাবা হল কুকুর, তোমরা শয়তানের পুজো কর। কিন্তু তোমাদের সময় হয়ে এসেছে। ডোনাল্ড ট্রাম্প এসে গেছেন। তোমাদের মেরে এই শহরকে শুদ্ধ করবেন। ইহুদিদের সঙ্গে হিটলার ‌যা করেছিলেন, ডোনাল্ডও তোমাদের সঙ্গে তাই করবেন। অপেক্ষা কর।(আরও দেখুন: ডোনাল্ড ট্রাম্প নাকি পাকিস্তানি? দাবি নওয়াজের দেশের সংবাদ মাধ্যমের)

নির্বাচনী প্রচারে মুসলিম ও জঙ্গিদের বিরুদ্ধে সরব হয়েছিলেন ট্রাম্প। একপ্রকার মুসলিম বিদ্বেষ ছড়িয়েই বহু ভোট হাসিল করেছেন ট্রাম্প। এমনটাই অভি‌যোগ বিভিন্ন মহলের। নির্বাচনের ফলাফল প্রকাশ হতেই ট্রাম্পের ওইসব বক্তব্যের প্রতিফলন শুরু শুরু হয় একের পর এক মুসলিম বিদ্বেষী ঘটনায়। ওই চিঠিতে সাবধান করা হয়েছে, ভালো চাও তো এখনই তল্পিতল্পা গুটিয়ে কেটে পড়।(আরও পড়ুন : মার্কিন মুলুকে জয়ী ডোনাল্ড ট্রাম্প, উচ্ছ্বাস হিন্দু সংগঠনগুলির)

গত সপ্তাহে ওই ধরনের চিঠি পায় ক্যালিফোর্নিয়ার তিনটি মসজিদ। প্রথম চিঠিটি আসে সান জোসের এভারগ্রিন ইসলামিক সেন্টারে। তার পর আরও দুটি মসজিদে আসে একই চিঠি। এনিয়ে তদন্তের দাবি করেছে সেখানকার মুসলিম সংগঠনগুলি।